Blog Archives

Meaning….Meaning….!

Meaning…. Meaning…..
This is not my wish to complete these writings about ‘meaning-meaning’ right now. I want to write these life-long. These include the meaning of life, the meaning of democracy, the meaning of 21, the meaning of love, the meaning of democracy etc. etc. What more! This is also my wish to see whether these remain correct even after decades, what is transformed in the name of meaning (seeking meaning). This would be better if I would (will) add-up new understanding. I am not in the group of those who confine themselves in the group of so called, ‘nothing would happen in life’, or in group of so called, ‘nothing happened’. I would like to be in the group of ‘optimistic people’. I am more prone to be in the group of those who can move further forward by defeating several defeats; know to change days; know to advance further despite left backward; know to win over unfavourable situation. I would like to be in the group who can snatch victory to get victory souvenir by just driving six or downing wicket in the last ball of the match, or securing ‘goal’ in the last minute or extra minutes of the breath taking match. Because everyone remembers Ram, not Raban. Whether he (Rabon) is the hero or villain, he is not remembered any more. I want to seek the meaning of life more and more. Meaning. Meaning… Meaning… Meaning…. Meaning…..

মানে…. মানে…..
এই মানে মানে দেওয়া লেখাগুলি আমি শেষ করতে চাই না। জীবন ব্যাপি লিখতে চাই। জীবনের মানে, স্বাধীনতার মানে, একুশ মানে, ভালোবাসার মানে, গণতন্ত্র ইত্যাদি, ইত্যাদি আর কি! এটাও দেখতে চাই এখন যেগুলিকে আমি মানেতে (মানে খোজাতে) রুপান্তর করছি, সেগুলো দশক-দশক পরে ঠিক থাকে কিনা। আরও নতুন-নতুন উপলব্ধি যোগ করতে পারলে বোধ হয় ভালোই হবে। আমি তথাকথিত ’জীবনে কিছু হবে না’, ’হলো না বলা’ লোকের দলে না। আশাবাদীদের দলে। আরও বেশি তাদের দলে যারা হারতে-হারতে এগুতে জানে। দিন বদলাতে জানে। পিছিয়ে পড়ে এগুতে জানে। প্রতিকুলতা জয় করতে জানে। ঠিক সেই শেষ বলে ছক্কা, বা শেষ বলে উইকেট নিয়ে অথবা শ্বাষরুদ্ধকর ম্যাচের শেষ মিনিট বা এক্সট্রা মিনিটগুলোতে গোল করে কাপ ছিনিয়ে নিতে জানে আমি সেই সব বীরদের দলে। কারণ সবাই তো রাম কে মনে রাখে, রাবনকে নয়। (রাবনকে) বীর হলেও নয়, খল হলেও নয়। জীবনের আরও মানে খুজতে চাই। মানে. মানে.. মানে… মানে…. মানে…..

1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view

Thanks and Courtesy: Google, Facebook and Many more (To be updated soon)

 

This slideshow requires JavaScript.

Facebook page-From the Heart of Bangladesh

The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!

Love Means
What does love mean? This is also a wish to reach to it. This is also a wish to write some lines. This would not be rather completing! Probably we can not find the meaning of love even if we write life-long about it. So, this would be better to keep this incomplete. This would be ever-increasing based on the future thoughts, if so! What if a book is covered with love and love! Who cares! Love is larger than life, isn’t it?

ভালোবাসা মানে কি? এটাও ধরতে চাইলাম। বেশ কটি লাইনও চাইলাম লিখতে। শেষই হয় না! মনে হয় সারা জীবন লিখলেও ভালোবাসার মানে বের করা যাবে না। তাই এটাকে অসমাপ্ত রাখলাম। যখন যা মনে হয় জীবন ব্যাপি বাড়াতে থাকবো। হোক না তাতে একটা বই ভরাট, শুধু ভালোবাসায় আর ভালোবাসায়। তাতে কি আসে যায়। ভালোবাসাতো জীবন থেকেও বড়, নয় কি?

ভালোবাসা মানে
মীর মাহাফুজ আলম

ভালোবাসা মানে তোমায় ভালোবাসি বলতে পারা,
ভালোবাসা মানে তোমার থেকে হ্যা সুচক পাওয়া সাড়া।
ভালোবাসা মানে হাতটি ধরে পথ ধরে হেটে চলা,
ভালোবাসা মানে তোমার মুখে ভালোবাসি, ভালোবাসি বলা।

ভালোবাসা মানে এক রিক্সায় বসতে পারা পাশাপাশি,
ভালোবাসা মানে বৃষ্টির দিনে এক ছাতায় কাছাকাছি।
ভালোবাসা মানে হঠাৎ দেখায়, হঠাৎ কিছু শিহরণ,
ভালোবাসা মানে তোমার কাছে, হারিয়ে ফেলা খোলা মন।

ভালোবাসা মানে এক প্লেটে, এক সাথে বসে খাওয়া,
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে, তোমায় খাইয়ে দেওয়া।
ভালোবাসা মানে এক সাথে পথের ধারে, দাড়িয়ে ফুচকা খাওয়া,
ভালোবাসা মানে এক সাথে টক আর চটপটি খেতে যাওয়া।

ভালোবাসা মানে গুজে দেওয়া, খোপায় আমার তাজা ফুল,
ভালোবাসা মানে তোমার হাসি অকৃত্তিম, পেয়ে ছোট্ট সোনার দুল!
ভালোবাসা মানে এক সাথে ঘুরতে যাওয়া, বিশ্ব ভালোবাসার দিনে,
ভালোবাসা মানে মনে করা তোমায়, বছরের সব দিনে, সব ক্ষণে।

ভালোবাসা মানে বসে থাকা, পা দুলিয়ে লেকের পাড়ে,
ভালোবাসা মানে হাটতে থাকা, একসাথে নদীর ধারে।
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে, শপিং করতে যাওয়া,
ভালোবাসা মানে ফুটপাতে, প্রিয় জিনিষটি খুজে পাওয়া।

ভালোবাসা মানে দাদুর হাসি, দাদীর দিকে চেয়ে,
ভালোবাসা মানে দাদীর ঝিলিক, খুনসুটি কাছে পেয়ে।
ভালোবাসা মানে সেই ক্ষণ, নানু যখন নানীকে দেয়, শুভ্র লাল গোলাপ,
ভালোবাসা মানে নানী যখন বলে ভেংচি কেটে, করে দিলাম তোমায় মাপ।

ভালোবাসা মানে বসন্তে তোমার মাথায়, গোল করে দেওয়া নানা ফুলের মালা,
ভালোবাসা মানে সইতে থাকা, দুরে থাকার জ্বালা!
ভালোবাসা মানে হঠাৎ করে, তুলে দেওয়া সব ফুল,
ভালোবাসা মানে ভুলে যাওয়া, যা কিছু হয়, বা যা হয়েছিলো সব ভুল।

ভালোবাসা মানে পার্কে বসে, ক্ষনিক সময় কাটানো,
ভালোবাসা মানে হাতাহাতি নয়, চুল ধরে পেটানো।
ভালোবাসা মানে মাপ করে দেওয়া, যদি হয় কোন ভুল,
ভালোবাসা মানে হেটে-হেটে চলা, ফেলে দীর্ঘ এলোচুল।

ভালোবাসা মানে শাড়ি আর টিপে, যখন তোমায় দেখি,
ভালোবাসা মানে ভালোবাসতে-বাসতে, যখন আরও ভালোবাসতে শিখি।
ভালোবাসা মানে বাবার-মায়ের, এক সাথে হেসে উঠা,
ভালোবাসা মানে ভাই আর বোনের, একসাথে হাটা, ছোটা।

ভালোবাসা মানে খাস দোয়া সন্তানের, নিজ বাবা-মায়ের প্রতি,
ভালোবাসা মানে লাভ আছে শুধু, নেই তাতে কোন ক্ষতি।
ভালোবাসা মানে প্রতীক্ষায় থাকা, হাত দুটি বাড়িয়ে,
ভালোবাসা মানে বিদায় বলা, চোখের জলে হাতটি নাড়িয়ে।

ভালোবাসা মানে কত পাগলামি, কত কিছু হয় স্মৃতি,
ভালোবাসা মানে জগতের বুকে, রেখে যাওয়া সাধু প্রীতি।
ভালোবাসা মানে টল-টল জল, তোমার চোখের পাতায়,
ভালোবাসা মানে লিখতে পারা কালো কালিতে, আমার সাদা খাতায়।

ভালোবাসা মানে বলতে শেখা, কাল নয়, ভাবো আজ,
ভালোবাসা মানে দু:খ-কষ্টে, একে অপরের কপালে পড়া ভাজ।
ভালোবাসা মানে ’মিস করি’ বলা, বিশেষ দিবস, ক্ষনে,
ভালোবাসা মানে আমার মনটি রয়েছে, এখনও তোমার সনে।

ভালোবাসা মানে দূর পাল্লায়, এক সাথে পথ চলা,
ভালোবাসা মানে খুনসুটি, সাথে তোমার মিষ্টি মধুর ছলা-কলা।
ভালোবাসা মানে এক হেডফোনে দুজনের গান শোনা,
ভালোবাসা মানে একসাথে দু’জনের স্বপ্ন খানিক বোনা।

ভালোবাসা মানে ডাব খাওয়া পথে, এক স্ট্রতে পাশাপাশি
ভালোবাসা মানে রাস্তার ধারে, বসা একটু কাছাকাছি।
ভালোবাসা মানে হঠাৎ পাওয়া, তোমার হাতের চিঠি,
ভালোবাসা মানে মেসেজ বা মেসেঞ্জারে, করা তোমার খুনসুটি।

ভালোবাসা মানে বইমেলায় যাওয়া, বা একসাথে বানিজ্য মেলায়,
ভালোবাসা মানে একসাথে যাওয়া, দেশী-বিদেশী মাঠের খেলায়।
ভালোবাসা মানে ঘুরতে যাওয়া, একসাথে ছুটির দিনে,
ভালোবাসা মানে শোনা ভালোবাসার গান, তোমার-আমার সনে।

ভালোবাসা মানে হঠাৎ বানানো স্পেশাল, তোমার হাতের কোন ম্যানু,
ভালোবাসা মানে হৃদয়ের রঙে রাঙানো, হাসি মুখে দেব-শিশু, হাতে তীর ও ধনু।
ভালোবাসা মানে টিপ দেখে তোমার, আমার আলতো হাসি,
ভালোবাসা মানে বলতে পারা ভালোবাসি-ভালোবাসি।

ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে বলা তোমার চাওয়া, দুষ্টু বাসনা,
ভালোবাসা মানে একসাথে খেতে যাওয়া, মেটানো রসনা।
ভালোবাসা মানে বসে থাকা অপেক্ষায়, কখন তোমার ছুটি হবে,
ভালোবাসা মানে ঠিক করা, কোথায় যাবো, আমরা, কখন-কোথায় কবে।

ভালোবাসা মানে বাদাম খাওয়া, হাটতে-হাটতে পথে,
ভালোবাসা মানে আদর করে দেওয়া প্রলেপ, নতুন-পুরোনো ক্ষতে।
ভালোবাসা মানে পা দুলিয়ে বসা, পানির ধারার ধারে,
ভালোবাসা মানে আড় চোখে দেখা, যাতে তোমার দৃষ্টি কাঁড়ে।

ভালোবাসা মানে তৈরি করে দেওয়া, নোট-প্রেজেন্টেশন রাত জেগে, দিন ভরে,
ভালোবাসা মানে ব্যথা বোঝা, তোমায় আপন করে।
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে দেখতে যাওয়া, মুভি দেশী বা বিদেশী,
ভালোবাসা মানে পড়তে দেখা তোমায় শাড়ি, খাদির, খাটি টিপটি দিয়ে স্বদেশী।

ভালোবাসা মানে কিনে দেওয়া তোমায়, ম্যাগাজিন ঈদ সংখ্যা বা পুজোর,
ভালোবাসা মানে কবিতা লেখা তোমায় নিয়ে দিন ভর, রাত-ভোর।
ভালোবাসা মানে মনে আসা সুর, ছন্দ মনে করে তোমায়,
ভালোবাসা মানে ভুলে যাওয়া সব ভুল, করতে পারা মাপ ও ক্ষমায়।

ভালোবাসা মানে দেশী কোন মেলায়, চড়কায় চড়া এক সাথে,
ভালোবাসা মানে মাথা ঘোরা ভন-ভন, নেমে চড়কা থেকে ত্বরাতে।
ভালোবাসা মানে আচার খাওয়া, একসাথে টক-ঝাল-মিষ্টি,
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে চুপ করে, বিনিময় শুভ দৃষ্টি।

ভালোবাসা মানে ফুলের তোড়াটি, নিজ হাতে দেওয়া তোমায়,
ভালোবাসা মানে যায় না তোমায় ভোলা, বলো কি কখনও যায়?
ভালোবাসা মানে ঘুরে-ঘুরে কেনা, স্বস্থায় জিনিষ সেরাটি,
ভালোবাসা মানে আমার হাতে দেওয়া, তোমার কেনা দেশী ফল পুরা খাটি।

ভালোবাসা মানে তোমার চয়েজে কেনা, আমার জন্য জামা,
ভালোবাসা মানে আমার চয়েজে কেনা, তোমার সালোয়ার-পায়জামা।
ভালোবাসা মানে তোমার চয়েজে কেনা আমার জন্য টি-শার্ট বা প্যান্ট,
ভালোবাসা মানে আমার হাতে কেনা খুসবু, দেশী বা বিদেশী প্রিয় কোন সেন্ট।

ভালোবাসা মানে গাওয়া এক সাথে,’প্রথমত আমি তোমাকে চাই, দ্বিতীয়ত আমি তোমাকে চাই, শেষ পর্যন্ত তো-মাকে চাই’,
ভালোবাসা মানে গাওয়া এক সাথে, ’আমারও পরাণ যাহা চায়, তুমি তাই.., তুমি তাই..’।
ভালোবাসা মানে ভালোবাসার নানা রঙে, এক সাথে মোরা সাজি,
ভালোবাসা মানে তোমার জন্য ধরা, নিশ্চিত হেরে যাওয়ার বাজি।

ভালোবাসা মানে তোমায় দেখে লাগা, সুখ-সুখ অনুভুতি,
ভালোবাসা মানে তোমায় দেখে, ফিরে পাওয়া চোখের সব-সবটুকু জ্যোতি।
ভালোবাসা মানে অনুভুতি সেই, শারিরীক-মানসিক,
ভালোবাসা মানে আজও কেঁপে উঠা, তোমার ছোঁয়ায় ঠিক।

ভালোবাসা মানে তোমায় না দেখে, খুব ছটপট করা অনুভুতির খেয়া,
ভালোবাসা মানে মিছে মিছি ধরা পড়া, বিনা দোষে ধরা দেওয়া।
ভালোবাসা মানে যদি হয়, এক সাথে থাকার প্রতিশ্রুতি,
ভালোবাসা মানে তবে নিশ্চয়ই, এক সাথে বাঁচা-মরারও অনুভুতি।

ভালোবাসা মানে বৃষ্টির দিনে, নিজ ছাতাটি মেলে দেওয়া,
ভালোবাসা মানে গৃষ্মের দিনে, পাখায় শীতল হাওয়ার ছোয়া।
ভালোবাসা মানে শীতের দিনে, নিজ জ্যাকেটটি দেওয়া নির্দিধায়,
ভালোবাসা মানে সব হারিয়েও. কভু না বলা হায়, হায়।

ভালোবাসা মানে দমকা হাওয়ার ঝড়ে, শক্ত করে ধরা হাত,
ভালোবাসা মানে নতুন সূর্য, নতুন দিনের প্রভাত।
ভালোবাসা মানে চায়ের কাপে উঞ্চ-মৃদু ধোয়া,
ভালোবাসা মানে এক কাপে দু-জনে কফি শেয়ারে নেওয়া।

ভালোবাসা মানে জন কিটস-এর দামী সেই, দামী বাণী,
ভালোবাসা মানে ’দূর্ভাগা সেই ব্যক্তি ভালোবাসা পেলনা যে, বা পারলনা দিতে’ মানি।
ভালোবাসা মানে রাজা এডওয়ার্ডের মতো, সিংহাসন ছাড়ার সাহস,
ভালোবাসা মানে প্রয়োজনে হয়ে যাওয়া, পাখির মতন বশ।

ভালোবাসা মানে আমরা যেমন বলি স্বাভাবিক ভাবে, আসে কৈশোরে-যৌবনে,
ভালোবাসা মানে ফট করে আসা সব বয়সে, সব ক্ষনে।
ভালোবাসা মানে তোমায় দেওয়া হাতে, প্রিয় আইসক্রিম-চকলেট,
ভালোবাসা মানে খাওয়া একসাথে, ডাল-ভাত-ভর্তা ফুল প্লেট।

ভালোবাসা মানে চলা রেল লাইনের ধারে, হাতে-হাত ধরে সমান্তরাল,
ভালোবাসা মানে তোমার-আমার মাঝে না থাকা, নিষ্টুর কোন আল।
ভালোবাসা মানে এক সাথে যাওয়া, নিত্য-নতুন এক্সিবিসনে,
ভালোবাসা মানে গায়তে পারা গান, বার বার তোমার সনে।

ভালোবাসা মানে স্রোতে ভেসে যাওয়ার ঠিক আগে, ধরা নির্ভরতার হাত,
ভালোবাসা মানে ভুলে যাওয়া কে বড়, কে খুব নিচু জাত।
ভালোবাসা মানে তোমার কলটির জন্য, করা অসীম-অসীম অপেক্ষা,
ভালোবাসা মানে শেষ দানে হেরে গিয়ে, তোমায় জেতাতে শেখানোর প্রতীক্ষা।

ভালোবাসা মানে সেই অনুভুতি, তোমায় ছাড়া লাগছে কত্ত ফাকা,
ভালোবাসা মানে ঘোর-অমনিষায়ও, অবলিলায় বিশ্বস্থ থাকা।
ভালোবাসা মানে তোমার চোখের ভাষা, খুব বুঝতে পারা,
ভালোবাসা মানে তোমায় দেখে, আমার বাগানের ফুলগুলির পড়ে যাওয়া বেশ সাড়া।

ভালোবাসা মানে দীর্ঘ দিন এক সাথে, থাকতে পারার নাম,
ভালোবাসা মানে তোমার হাতে, আমার পাওয়া নির্ভরতার কঠিন দাম!
ভালোবাসা মানে একসাথে ছোটা, একসাথে বেড়ে উঠা,
ভালোবাসা মানে কুঁড়ি থেকে এক গাছে, ফুল হয়ে বেশ ফোটা।

ভালোবাসা মানে আপনি থেকে তুই, তুই থেকে তুমি, অবলিলায় বলতে পারা,
ভালোবাসা মানে টিকে থাকা, যখন নেই কেউ পাশে, আমি আর তুমি ছাড়া।
ভালোবাসা মানে কভু-কভু, সমভাবে গিভ-এন্ড-টেইক,
ভালোবাসা মানে ঠেকে-ঠেকে শেখা, ভুল থেকে বা ফেইক।

ভালোবাসা মানে তোমার-আমার, ধৈর্য্য ধরার নাম,
ভালোবাসা মানে তোমার সুখের জন্য আমার নির্দিধায় ফেলা ঘাম।
ভালোবাসা মানে একসাথে দেখা, সুন্দর সব ভিউ,
ভালোবাসা মানে সেই মন ছোয়া গান, ’আই উইল বি রাইট হিয়ার ওয়েটিং ফর ইউ’!

ভালোবাসা মানে ভুলে না যাওয়া, বিশেষ-বিশেষ দিন,
ভালোবাসা মানে ভুলে না যাওয়া, জানু, এনিভার্সারী, বার্থ ডে আর প্রথম দেখার দিন।
ভালোবাসা মানে এক্সপেক্টটেশণ কে দুরে-দুরে ঠেলে দেওয়া,
ভালোবাসা মানে ছেড়ে দেওয়া সাবলিল ভাবে, ফের খুলে বলা, ’ফিরে এসো আমার হলে, না হলে দুরে গিয়েও ভালোবেসো’-সখি কারে বলে কাছে পাওয়া।

ভালোবাসা মানে দেওয়া একে অন্যের প্রতি নি:ছিদ্র মনোযোগ,
ভালোবাসা মানে হৃদয় থেকে আমার, তোমার হৃদয়ে দেওয়া সংযোগ!
ভালোবাসা মানে সঠিক ভাবে চারপাশে দেওয়াল তুলতে পারা,
ভালোবাসা মানে তুমি-আর-আমি, আমি-আর-তুমি, কে বা তাছাড়া।

ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে, তোমার স্মৃতিতে আসা, চোখের এক ফোটা জল,
ভালোবাসা মানে তোমার সাহসে পাওয়া, আমার বুকের বল।
ভালোবাসা মানে সেই ফুলটি যেন, ভালো লাগলে বেশ তুলে নিই,
ভালোবাসা মানে সেই ফুলগাছটি যেন, ভালোবাসলে রোজ জল দিই।

ভালোবাসা মানে তুমি-তুমি, আর আমি-তুমি বলা পাগলামি,
ভালোবাসা মানে এই ভাবে কেটে যাওয়া, সব দিন খুব দামী।
ভালোবাসা মানে সেই অনুভুতি যেন, অন্যের সুখে সুখী হওয়া, বিনিময়ে না চাওয়া একটুও রিটার্ন,
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে বলা, তুমি হানি! তুমি জান!!

ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে ভেঙে, খান-খান হয়ে যাওয়া,
ভালোবাসা মানে সব হারিয়েও, সব ফিরে পাওয়া।
ভালেবাসা মানে পার্টনার হওয়া, নয় মালিক হওয়া কভু,
ভালেবাসা মানে আমাদের একসাথে হতে পারা, নত তোমার কাছে প্রভু।

ভালোবাসা মানে বুঝতে পারা ধুক-ধুক, ধুক-ধুক,
ভালোবাসা মানে বুঝতে পারা ঠুক-ঠুক, ঠুক-ঠুক।
ভালোবাসা মানে হেরে যাওয়া, মুড়ে ফেলা আমিত্ব বোধ,
ভালোবাসা মানে শুধু ভালোবাসা, না নেওয়া ভুল শোধ।

ভালোবাসা মানে নিজ হাতে, তোমার ছবি আঁকা,
ভালোবাসা মানে তোমার স্মৃতিতে ছন্দ, কবিতা লিখতে থাকা।
ভালোবাসা মানে এক হাতে ভালোবাসা, অপর হাতে রাখা বিশ্বাস,
ভালেবাসা মানে সম্মানে সমান দুজনই, নয় কেউ প্রভু, নয় কেউ দাস।

ভালোবাসা মানে ফিরিয়ে দেওয়া নয়, বাড়িয়ে দেওয়া বিশ্বস্থ হাতটিকে,
ভালোবাসা মানে ছড়িয়ে দেওয়া বাণী সৌহাদ্যের, দিকে-দিকে।
ভালোবাসা মানে সেই অনুভুতি দেখায়, দীর্ঘ দিন দুরে থাকার প’র।
ভালোবাসা মানে ফুরিয়ে না যাওয়া, ভালোবাসা না হওয়া কভু নড়চড়।

ভালোবাসা মানে নয়, নয় কভু লোভে পড়া,
ভালোবাসা মানে খটখট করে, তোমার দুয়ারের কড়া নাড়া।
ভালোবাসা মানে নয় ত্যাগ করা, বিনিময়ে কোন কিছুর,
ভালোবাসা মানে ভয় না পাওয়া শাপ, বাঘ বা বিছুর।

ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে বলা, মিষ্টি করে হ্যা,
ভালোবাসা মানে মাঝে-মাঝে বলা, ছোট্ট করে না।
ভালোবাসা মানে তোমায় দেখে, চোখের পাতা পিট-পিট করা,
ভালোবাসা মানে তোমায় ভেবে ধীরে-ধীরে লেখা কবিতা, গান ও ছড়া।

ভালোবাসা মানে ভালোবেসে তোমায়, চোখের তারায় স্থির হতে চাওয়া,
ভালোবাসা মানে হাত ধরে হাটা-হাটিতে, বাগানের ফুলের গন্ধ পাওয়া।
ভালোবাসা মানে একসাথে বসে মধুর ফলটি খাওয়া,
ভালোবাসা মানে বৃষ্টির জলে একসাথে হেটে যাওয়া।

ভালোবাসা মানে বেঞ্চে বসে, পৃথিবীকে দেখা চলতে,
ভালোবাসা মানে ঝরণার জলে, তোমাকে দেখা ভিজতে।
ভালোবাসা মানে খালি পায়ে বাগিচায়, একসাথে হেটে বেড়ানো,
ভালোবাসা মানে সমুদ্র তটের বালির বুকে, তোমার-আমার পায়ের সবকটি আঙুল ডুবানো!

ভালোবাসা মানে নয় শুধু দেওয়া ফেসবুকে লাইক বা লাভ, বরং তার চে’ বেশি কিছু,
ভালোবাসা মানে প্রয়োজনে বাড়িয়ে দেওয়া, তোমার হাতে টিস্যু!
ভালোবাসা মানে শত্র‌ু হয়ে গেলে, শত্র‌ুকেও ভালোবাসা।

ভালোবাসা মানে ভালোবাসা, শুধুই ভালোবাসাই খাসা।

ভালোবাসা মানে তোমায় যখন ফুলের তোড়াটি দেই,
ভালোবাসা মানে দুষ্টমি-দুষ্টমি সেই নয় আমি, আমি নয় সেই!
ভালোবাসা মানে হঠাৎ করে তোমায় চমকে দেওয়া,
ভালোবাসা মানে বেঁচে থাকা, বেঁচে থাকে, মরা নয় কভু হিয়া।

ভালোবাসা মানে হঠাৎ খেপানো, হঠাৎ চমকে দেওয়া,
ভালোবাসা মানে মেনে নেওয়া, মানিয়েও খানিক নেওয়া।
ভালোবাসা মানে এক ছাদের তলায়, বসবাস বারো মাস,
ভালোবাসা মানে তোমার শ্বাসটি মনে করা নিজ প্রিয় শ্বাস।

This slideshow requires JavaScript.

Related Link:
1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!

Independence means
This is my wish to reach to the independence, seems to remain unreached yet. This can’t be achieved even after writing hundreds of lines more! The independence is as costly, as the name of a gem stone. So many nations can not have the taste of independence even after the struggle for freedom for hundreds of years. Even so many nations can not defend their freedom. This write-up is the respectful tribute to the hero in achieving freedom and to the hero in defending independence. The time spent for this write-up would be considered as fruitful if someone like this. Selected lines have been published here.

স্বাধীনতার কাছে পৌছাতে চাইলাম, লিখে পৌছানোই গেলো না এখনও বোধ হয়। আরও শত শত লাইন লিখলেও বোধ হয় পৌছানো যাবে না। স্বাধীনতা এত দামী, স্বাধীনতা এত্ত মূল্যবান রত্ন’র নাম। কত জাতি আছে যারা শত-শত বছর লড়েও স্বাধীনতার স্বাদ লাভ করেনি। আর কত জাতি আছে যারা স্বাধীনতাকে ধরে রাখতে জানেনি। স্বাধীনতা পাওয়া যেমন কঠিন, তেমনি রক্ষা করা আরও কঠিনতর, বলার অপেক্ষা রাখে না। স্বাধীনতা অর্জনের ও রক্ষার বীরদের প্রতি স্বশ্রদ্ধ ট্রাইবিউট এই লেখাটি। যদি কারও ভালো লাগে তাহলে এই লেখাটির জন্য ব্যয় করা সময়টি স্বার্থক হবে। এখানে নির্বাচিত অংশ প্রকাশ করা হলো।

 

স্বাধীনতা মানে
মীর মাহাফুজ আলম

স্বাধীনতা মানে শীত কালে যেমন ওমের কাঁথা,
স্বাধীনতা মানে তোমার-আমার গল্প কোন গাথা।
স্বাধীনতা মানে কারও কখনও দাসত্ব করা নয়,
স্বাধীনতা মানে গোলামীর পিঞ্জর না পড়ার লড়ায়ে অকুতোভয়।

স্বাধীনতা মানে তপ্ত দুপুরে তেষ্টা মেটানো জল,
স্বাধীনতা মানে মিলে মিশে খাওয়া মিষ্টি গাছের ফল।
স্বাধীনতা মানে বৃষ্টির দিনে মাথায় ধরা ছাতা,
স্বাধীনতা মানে আমার খাতায় লেখা যা-তা কথা।

স্বাধীনতা মানে গাইতে পারা আমার সোনার বাংলা… শির করে ঠিক উচ্চ,
স্বাধীনতা মানে বারবার ভালোবাসি বলতে পারা, তোমায়, বুঝছো!
স্বাধীনতা মানে কাজী নজরুল সেই চির বিদ্রোহী হওয়ার অবিরাম সাধনা,
স্বাধীনতা মানে বলতে পারা আমি সেই দিন হবো শান্ত.. শুনবো না কোন মানা।

স্বাধীনতা মানে শামসুর রাহমানের পড়তে পারা ’স্বাধীনতা তুমি’ কবিতা,
স্বাধীনতা মানে খুশি মতো আঁকা ছবির কোন খাতা।
স্বাধীনতা মানে ললিত সুরে আজানের সমুধর ধ্বনি,
স্বাধীনতা মানে খুড়তে পারা নিজের বুকের খনি।

স্বাধীনতা মানে আল মাহমুদের ভিন্ন ধারার সুর,
স্বাধীনতা মানে নচিকেতা সুমনের দিন বদলের চেষ্টায় গাওয়া গান-দুর থেকে সদূর।
স্বাধীনতা মানে গাওয়া কবির চির সাম্যের গান,
স্বাধীনতা মানে পিতার-মাতার কন্ঠে কোরআনের সুর জুড়ানো প্রাণ।

স্বাধীনতা মানে কোন জ্ঞানীর বুদ্ধিদীপ্ত বয়ান,
স্বাধীনতা মানে যার কন্ঠের কোরআনের সুর পৌছে যায় সবার হৃদয়ে, হোক সে মোমিন-বেইমান।
স্বাধীনতা মানে বৃদ্ধ-যুবার বারবার আত্মত্যাগও,
স্বাধীনতা মানে হারতে-হারতে জিতে যাওয়া শেখো।

স্বাধীনতা মানে ইচ্ছে মতো যেমন ঘুমুতে পারা,
স্বাধীনতা মানে ইচ্ছে মতো সব কিছু পড়তে, দেখতে পারা!
স্বাধীনতা মানে ভয় না পেয়ে বলতে পারা হক কথা, হক কথা,
স্বাধীনতা মানে ভুলতে পারা দু:খ-শোকের ব্যথা।

স্বাধীনতা মানে কোন সাধুর পড়া অবিরল সেই মন্ত্র,
স্বাধীনতা মানে গণতন্ত্র, আসলেই, গণতন্ত্র।
স্বাধীনতা মানে বাউলের সেই আকুল করা সুরের আকুতি,
স্বাধীনতা মানে ইচ্ছে মতো পড়তে পারা শুভ্র সফেদ ধুতি।

স্বাধীনতা মানে ধোপার হাতে কাঁচা সফেদ পোশাক,
স্বাধীনতা মানে ঢোলের সেই সুর, ধুম তাক, ধুম তাক।
স্বাধীনতা মানে মেথর, মুচির কাজকে স্যালুট করা,
স্বাধীনতা মানে নমশুদ্র, দলিত, উপজাতির সাথে কোলাকুলি করা।

স্বাধীনতা মানে ফুলের গন্ধ, ফুলের মিষ্টি সুবাস,
স্বাধীনতা মানে চার্চ-প্যাগোডায় প্রার্থনার ধ্বনি, দিল খোলা নি:শ্বাস।
স্বাধীনতা মানে স্বাধীন ভাবে পাওয়া দেশী খাবারের স্বাদ,
স্বাধীনতা মানে আর্মির বাধা, প্রতিরক্ষার প্রবল বাঁধ।

স্বাধীনতা মানে ইচ্ছে মতোন চলতে পারা পথ,
স্বাধীনতা মানে শুনতে পারা, নানা মুনির নানা মত।
স্বাধীনতা মানে নদীর বুকের শান্ত নদীর জল,
স্বাধীনতা মানে ঝড়-ঝঞ্জায় খুজে পাওয়া স্থল।

স্বাধীনতা মানে সবুজ মাঠে উঠা হাওয়ার প্রিয় হাক,
স্বাধীনতা মানে পাখির সুরে মধুর কোন ডাক।
স্বাধীনতা মানে উড়তে দেখা সবুজ-লাল পতাকা,
স্বাধীনতা মানে পতাকার লাল গোল সূর্য সহ পতপত ধ্বনি করতে থাকা।

স্বাধীনতা মানে বিশ্বাসীকে ঠিকই খুজে পাওয়া,
স্বাধীনতা মানে ছদ্ববেশী অবিশ্বাসীকে দুরে ঠেলে দেওয়া।
স্বাধীনতা মানে প্রিয় তোমার কপাল, দেওয়া ছোট্ট লাল-কালো সেই টিপ,
স্বাধীনতা মানে মাছ ধরা নিজ হাতে, ফেলে চিকন বাশের ছিপ।

স্বাধীনতা মানে অপঘাতে যেমন কারও মরা নয়,
স্বাধীনতা মানে বিনা-বিচারে কারও জেল খাটা না হয়, না হয় ।
স্বাধীনতা মানে ক্রসফায়ার-এনকাউন্টারের মৃত্যুর বিচারে ঠিক জিরো টলারেন্স,
স্বাধীনতা মানে বীর বাহিনীর সততার, বীরত্বের প্রকৃত সেন্স।

স্বাধীনতা মানে টাকা পাচার যেমন নয়,
স্বাধীনতা মানে গরীব-দু:খীর মুখে ফোটা হাসির বিজয়।
স্বাধীনতা মানে গণ মাধ্যমের চাওয়া প্রকৃত স্বাধীনতা,
স্বাধীনতা মানে কারও কাছে নয়, কারও কাছে নয়, নিজ বিবেকের কাছে অধীনতা।

স্বাধীনতা মানে যেমন বঙ্গবন্ধুর দরাজ কন্ঠে স্বাধীন গণ-মানুষের ডাক,
স্বাধীনতা মানে তেমনি রণাঙ্গনে মেজর জিয়ার নির্ভিক স্বাধীনতারই হাক,
স্বাধীনতা মানে মুক্তিযোদ্ধার জান বাজি রাখা যুদ্ধ,
স্বাধীনতা মানে করুণ সুরে নারীর ইজ্জত বলিদান রুদ্ধ।

স্বাধীনতা মানে কামাল করা, বাঁশির সুরে বাঁশি,
স্বাধীনতা মানে খুশি মনে পড়া ক্ষুদি রামের ফাঁসি।
স্বাধীনতা মানে দাসি-মালকিনের না থাকা ব্যবধান,
স্বাধীনতা মানে বিলিয়ে দেওয়া অকাতরে, প্রয়োজনে নিজ-নিজ প্রিয় জান।

স্বাধীনতা মানে যেমন নদীর বুকে নৌকা পাল তোলা,
স্বাধীনতা মানে তেমনি মাঠে-মাঠে ধানের শীষের দোলা।
স্বাধীনতা মানে স্বীকার করা সোহরাওয়ার্দী-ভাসানির যেমন অবদান,
স্বাধীনতা মানে উসমানী-তাজউদ্দিনেরর জনযুদ্ধে দৃড় নেতৃত্ব প্রদান।

স্বাধীনতা মানে গর্ব করে বলতে পারা, আমি বাঙ্গালী, বাংলাদেশী আমি,
স্বাধীনতা মানে অমূল্য রতন, সব থেকে, সব থেকে বেশ দামী।
স্বাধীনতা মানে প্রভাত ফেরীতে ফুল দিয়ে খালি পায়ে ফিরে আসা,
স্বাধীনতা মানে মানুষে-মানুষে দিল খোলা কোলাকুলি, ভালোবাসা।

স্বাধীনতা মানে বুক ফুলে উঠা খেলার মাাঠে জিতলে নিজ প্রিয় স্বদেশ,
স্বাধীনতা মানে ক্ষমা প্রদর্শন যে হেরে যায়, যে হয়ে যায় নি:শ্বেষ।
স্বাধীনতা মানে বাংলায় রোজ কথা বলতে পারা,
স্বাধীনতা মানে প্রয়োজনে অন্য ভাষাতেও দিতে পারা মন খুলে সব সাড়া।

স্বাধীনতা মানে শফিক রেহমানের ’দিনের পর দিন’-এ বুুদ্ধি দীপ্ত এ্যানালাইসিস,
স্বাধীনতা মানে গাফফার চৌধুরীর ’আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানের রক্ত হিম করা সিস।
স্বাধীনতা মানে হানিফ সংকেতের ’ইত্যাদির’ জমজমাট বেশ আয়োজন,
স্বাধীনতা মানে শাইখ সিরাজের ’কৃষি দিবানীশি’তে কৃষি আর বিজ্ঞানের বুদ্ধিদীপ্ত বিপণন।

স্বাধীনতা মানে ড. ইউনুসের স্বপ্ন ছড়ানো স্বদেশ, ব্র্যান্ডিং বিশ্বজোড়া,
স্বাধীনতা মানে ব্র্যাক-আশা’র তৃনমুলে দেশ গড়া।
স্বাধীনতা মানে আইসিসিডিডিআর,বি’র নিরবে দেশের সেবা,
স্বাধীনতা মানে সবুজ গাছের ডালে-ডালে লাল রক্ত জবা।

স্বাধীনতা মানে মাহামুদুর রহমানের দেশ প্রেমিক কলাম,
স্বাধীনতা মানে মতিউর রহমানের প্রথম আলোর বুদ্ধিদীপ্ত চলার নাম।
স্বাধীনতা মানে জেমসের প্রাণ দোলানো মা-বাবা গানে উদাত্ত্ব সুর আর,
স্বাধীনতা মানে সুরের পাখির বুলবুলের ’ক্লোজ আপ ওয়ান’-এ জাজমেন্ট খুরধার ।

স্বাধীনতা মানে নদীর বুকে স্বপ্ন দেখানো ব্রিজ পদ্মা, যমুনা,
স্বাধীনতা মানে নদীর তলে টানেল নমুনা।
স্বাধীনতা মানে মাথার উপর ছুটে চলা মেট্রো রেল,
স্বাধীনতা মানে বড়-বড় প্রজেক্ট করতে পারার অদম্য বাসনা।

স্বাধীনতা মানে যমুনা ও বসুন্ধরার বড়-বড় স্বপ্নের বাস্তবায়ন,
স্বাধীনতা মানে স্বপ্ন যেমন দেখা, স্বপ্ন করা পূরণ।
স্বাধীনতা মানে ওয়ালটনের পথ দেখানো সব কিছু,
স্বাধীনতা মানে দেখিয়ে দেওয়া তৈরি করা যায় দেশে হেলিকপ্টার থেকে টিস্যু।

স্বাধীনতা মানে ট্রান্সকমের দেশকে এগিয়ে নেওয়া,
স্বাধীনতা মানে সব ঘরে নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপদ বিদ্যুৎ দেওয়া।
স্বাধীনতা মানে ডেসটিনির গাছ লাগানোর কনসেপ্ট কে এগুনো,
স্বাধীনতা মানে স্বাধীনতা রক্ষায় নি:শ্বেষে প্রাণ দানও ।

স্বাধীনতা মানে স্কয়ারের সেবা দিন রাতি,
স্বাধীনতা মানে উন্নয়ন, হ্যা, উন্নয়নে মাতি।
স্বাধীনতা মানে নতুন-নতুন এয়ারলাইন্সের দৃপ্ত পথচলা,
স্বাধীনতা মানে অটো-মোবাইলের স্বপ্ন পূরণ হতে বলা।

স্বাধীনতা মানে ওয়েষ্টান মেরিনের চোখ ধাঁধানো জাহাজ বানাতে পারা,
স্বাধীনতা মানে বিএসআরএমের রডে শীর্ষ অট্টালিকা গড়া।
স্বাধীনতা মানে টেলিযোগাযোগে দেশী-বিদেশী সফল কলাবেরশন,
স্বাধীনতা মানে গার্মেন্টস আর টেক্সটাইলে নিরক্ষর থেকে সেরা মেধাদের সাফল্য শন-শন।

স্বাধীনতা মানে এপেক্সের হরেক দেশী চামড়ায় তৈরি করতে পারার নিত্য-নতুন প্রডাক্টের বারতা,
স্বাধীনতা মানে নিজ দেশে করতে পারা তৈরি হরেক রকম সুতা।
স্বাধীনতা মানে প্রাণ-আরএফএল-এর হরেক পণ্যের সমাহার,
স্বাধীনতা মানে সিটি গ্রুপের তেল-চিনি পাওয়া সময় মতো প্রয়োজন যখন যার।

স্বাধীনতা মানে সোলার আলো পৌছে যাওয়া সবার আগে পৌছেনি যেথায় কেহ,
স্বাধীনতা মানে চরে-চরে ফলানো ফসল চাষীর শ্রম স্বার্থক শ্রেয়।
স্বাধীনতা মানে বিশুদ্ধ পানি পারটেক্সের ক্রিষ্টাল ক্লিয়ার ’মাম’,
স্বাধীনতা মানে ব্যবহারিক ও দৃষ্টনন্দন ডিজাইনের অটবির পণ্যের সুনাম।

স্বাধীনতা মানে খেটে খাওয়া গ্রাম্য মানুষের পণ্যের আড়ং এর শৈল্পিক উপস্থাপনা,
স্বাধীনতা মানে নিজ দেশে খাটি পণ্য তৈরি করতে জানা।
স্বাধীনতা মানে নিজ দেশে বিশ্বমানের সিমেন্ট তৈরি,
স্বাধীনতা মানে নাসির গ্রুপের বিশ্বমানের কাচ সাদা-কালো-খয়েরী।

স্বাধীনতা মানে রহিম আফরোজের আঁধারে আলোর সাথী,
স্বাধীনতা মানে হওয়া নতুন-নতুন ব্যাংকের সাফল্যের সারথী।
স্বাধীনতা মানে সফটওয়্যার কোম্পানীর বিশ্বব্যাপী সাফল্য বেশি-অল্প,
স্বাধীনতা মানে স্বাধীন মিডিয়ার সাফল্য গাথা গল্প।

স্বাধীনতা মানে করতে পারা বিশ্ব মানের ফ্লিম, মুভি, ছবি,
স্বাধীনতা মানে ফার্মসিটিকলের জয়গাথা, উঠতে পারা রবি।
স্বাধীনতা মানে লিড নিতে পারা জাহাজ নির্মান শিল্পেও,
স্বাধীনতা মানে খালেদা জিয়া-শেখ হাসিনার অম্ল মধুর গণতন্ত্রও।

স্বাধীনতা মানে যেমন নিরপেক্ষ বিচার বিভাগ চাওয়া,
স্বাধীনতা মানে তেমনি দাড়ি-পাল্লার সুক্ষ নিক্তিতে মাপা সঠিক রায়টি পাওয়া।
স্বাধীনতা মানে হুমায়ুন আহম্মেদের ঝড়ঝড়ে গদ্য,
স্বাধীনতা মানে নাম না জানা মেধাবী কবির সুরেলা পদ্য।

স্বাধীনতা মানে দেখতে পারা লাখ-লাখ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদনের স্বপ্ন-সম্ভাবনা,
স্বাধীনতা মানে চেনা মুখের সেই হাসি খুব চেনা।
স্বাধীনতা মানে আমরা এখন যেমন আছি।
স্বাধীনতা মানে আমরা যেমন ছিলাম কাছাকাছি।

স্বাধীনতা মানে শেষ বলে ছক্কা মেরে জেতা,
স্বাধীনতা মানে এক্সট্রা মিনিটে হার না মানা গোল করার ক্ষমতা।
স্বাধীনতা মানে কাবাডি-কাবাডি দৌড় দিয়ে ঝাপটিয়ে ধরা প্রতিপক্ষ,
স্বাধীনতা মানে শুটিং-এ লক্ষ্যভেদী স্কোর করে হওয়া দক্ষদেরও দক্ষ।

স্বাধীনতা মানে ঠান্ডা মাথায় প্রতিপক্ষকে করতে পারা চেজ,
স্বাধীনতা মানে গ্রান্ড মাস্টার নিয়াজ মোরশেদ, জিয়া, রিফাত, রাজিব এর দাবায় দেখানো তেজ!
স্বাধীনতা মানে সিদ্দিকুরের বলবয় থেকে গলফার হয়ে উঠা,
স্বাধীনতা মানে সিদ্দিকুরের পতাকা নিয়ে সুবুজ মাঠে বীরের মতো ছোটা।

স্বাধীনতা মানে শ্লোগানে-শ্লোগানে যেমন ‘জয় বাংলা‘ বলতে পারা,
স্বাধীনতা মানে ঠিক তেমনি ‘বাংলাদেশ জিন্দাবাদ‘ শ্লোগানে পড়ে যাওয়া সাড়া।
স্বাধীনতা মানে সব মত ও পথের শান্তিপূর্ণ সহবস্থান,
স্বাধীনতা মানে অবারিত কথা বলার ও শোনার স্বাধীনতার জ্ঞান।

স্বাাধীনতা মানে না করা ধর্মের নামে হানাহানি,
স্বাধীনতা মানে না করা ধ্বংসের জন্য কানাকানি।
স্বাধীনতা মানে নিশ্চিত করা, শান্তির জন্য, প্রার্থনা সব মতের,
স্বাধীনতা মানে মুখ বুঝে ভুলে যাওয়া পুরোনো সব ক্ষতের।

স্বাধীনতা মানে ভুলে যাওয়া চেনা দু:খ, অচেনা সব বেদনা,
স্বাধীনতা মানে অপরের মুখে তুলে দেওয়া স্বাদের নিজ মুখের দানা।
স্বাধীনতা মানে মায়ের আচল, মুখ খানি যেন মাখা মমতা,
স্বাধীনতা মানে নারী-পুরুষের আক্ষরিক সমতা।

স্বাধীনতা মানে তোমার মুখের বিরল দেখা টোল,
স্বাধীনতা মানে তোমার মুখের মিষ্টি কথার বোল।
স্বাধীনতা মানে সেই শিশুটির বুকে আাঁকা দৃপ্ত-দৃড় শপথ,
স্বাধীনতা মানে নতুন সূর্য, শান্তির পতাকা উড়া পতপত!

 

 

This slideshow requires JavaScript.

Related Link:
1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view


Facebook page
From the Heart of Bangladesh

The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!

Democracy means
We want to find the meaning of so many things in our daily life. Can we? This is a wish to reach to democracy. So many things left, it seems yet! Let it be. This is a request for not considering this is about Bangladesh or Bangladesh Govt. In fact, this condition remains in so many countries of the third world, developed or mid developed countries decade after decade. Even it was in the past. By transforming, these countries are either become developed or in the way to be developed countries. We also want to be a developed country. This is also a wish that all the countries who are in the path of development should achieve their goal soon. Humanity must win. The good wishes of different Govt. would be successful. This is merely co-incidence if anything matches with the life of anyone in the present or in the past or even in the future. If anyone tries to match, the responsibility will be on the person trying. Selected portions have been published here.

আমরা অনেক কিছুর মানে খুজতে চাই। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে। পারি কি? গণতন্ত্রকে ধরতে চাইলাম। মনে হচ্ছে অনেক কিছু বাকি থেকে গেলো। তোলা থাক। কেউ ভুলেও ভাবনেন না এটা বাংলাদেশ বা বর্তমান সরকারকে নিয়ে লেখা। আসলে যুগ-যুগ ধরে তৃতীয় বিশ্বে বা উন্নত ও মাঝারী অনেক দেশে এই রকম অবস্থায় রয়েছে। বা ছিলো। পরিবর্তন হয়ে উন্নত দেশে পরিণত হয়েছে বা হওয়ার পথে। আমরাও চাই আমাদের দেশটি অনেক উন্নত হোক। পাশাপাশি যারা এই চেষ্টায় রয়েছেন পুরো বিশ্বে তাদের জন্যও শুভ কামনা। মানবতার জয় হোক। দেশে-দেশে সব সরকারের শুভ মতি সফল হোক। কোন কিছু কারও জীবনের অতীত-বর্তমান বা এমন কি ভবিষ্যত জীবনের সাথে মিলে গেলে তা নিতান্তই কাকতালীয়। আর কেউ মেলানোর চেষ্টা করলে তার দায়ভার চেষ্টাকর্তার। সিলেক্টেড অংশ প্রকাশ হলো।

গণতন্ত্র মানে
মীর মাহাফুজ আলম

গণতন্ত্র মানে একটা খোলা আকাশ,
গণতন্ত্র মানে বুক খুলে নেওয়া স্বস্থির নি:শ্বাস।
গণতন্ত্র মানে সবুজ মাঠের দিগন্ত ভরা হাওয়ার যেমন ঢেউ,
গণতন্ত্র মানে ভরা নদীতে তর-তর চলা পাল তোলা নৌকা বাওয়া কেউ।

গণতন্ত্র মানে জয়-তারেকের গলাগলি-কোলাকুলি,
গণতন্ত্র মানে খালেদা-হাসিনার বিনিময় মিষ্টি হাসি ও বুলি।
গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার হাত ধরে চলা পাশাপাশি,
গণতন্ত্র মানে এলোচুলে পথ চলতে পারা, বসা কাছাকাছি।

গণতন্ত্র মানে স্বাধীন ভাবে বলতে পারা কথা,
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা একে-অপরের ব্যথা।
গণতন্ত্র মানে স্বাধীন ভাবে মিডিয়ার পথ চলা,
গণতন্ত্র মানে রাষ্টের নয়, নয় কোন ছল কলা।

গণতন্ত্র মানে নয়, কভু নয়, ভাষা অস্ত্রের, বোমার, গুলির,
গণতন্ত্র মানে একটুও নয়, শূট বরাবর খুলির।
গণতন্ত্র মানে সব বাহিনীর হাতে ফুলের তোড়া,
গণতন্ত্র মানে বসতে পারা, শালীন ভাবে জোড়া!

গণতন্ত্র মানে খুন নয়, হতে পারে খুন-সুটি,
গণতন্ত্র মানে নয় করে ফেলা আইনকে কুটি-কুটি।
গণতন্ত্র মানে নয় তোমায় মারবো, তোমায় পড়াবো দড়ি,
গণতন্ত্র মানে নয় ফাসাবো তোমায়, বলতে পারা বরং ভারাক্রান্ত হৃদয়ে ’সরি’।

গণতন্ত্র মানে মারতে-মারতে কোনঠাসা করা নয়,
গণতন্ত্র মানে জয় করতে পারা, না পেয়ে কোন ভয়।
গণতন্ত্র মানে বিজয় সূর্য, দূর আকাশের সীমানায়,
গণতন্ত্র মানে আশ্রয় পাওয়া পথের শিশুর, রাষ্ট্রের কোলে ঠায়।

গণতন্ত্র মানে হিলারী-ট্রাম্পের, বুদ্ধিদৃপ্ত ইলেকশন ডিবেইট,
গণতন্ত্র মানে বিলেতে অলিখিত সংবিধান মানতে পারা স্ট্রেইট।
গণতন্ত্র মানে শত-মত-পথের শান্তিপূর্ণ সহিঞ্চু পাশের ভারত,
গণতন্ত্র মানে ইউরোপের সম মানের উন্নত জীবন গঠনের দৃপ্ত শপথ।

গণতন্ত্র মানে সব মানুষের মিলন প্রতিদিন মানি,
গণতন্ত্র মানে হিংসে নয়, শোনাও অহিংসার বাণী।
গণতন্ত্র মানে রক্তের বদলে রক্ত যেমন নয়,
গণতন্ত্র মানে দাতের বদলে দাত তুললে কি হয়?

গণতন্ত্র মানে পূর্ব পুরুষের রক্ত বদলা যদি হয়?
গণতন্ত্র মানে তাহলে কি প্রতিশোধ-প্রতিশোধ মাখা ক্ষয়!
গণতন্ত্র মানে নিজ দেশবাশীর বুকে বুলেট আর বুলেট-বোমার ইঙ্গিত যদি হয়?
গণতন্ত্র মানে তবে কি এগুলি শুধু ঠেলাঠেলি, ফেলাফেলি নয়?

গণতন্ত্র মানে ভীনদেশীদের চোখ রাঙ্গাণীতে দেখানো অকুতোভয়,
গণতন্ত্র মানে সেই রই, যে সবকিছুই বুক পেতে সয়।
গণতন্ত্র মানে নয় এই বাহিনীর, ঐ বাহিনীর অতিশয় বাড়াবাড়ি,
গণতন্ত্র মানে নয় চেষ্টা পরিবারে-পরিবারে ছাড়াছাড়ি।

গণতন্ত্র মানে ঝোপ বুঝে কোপ, যদি তা মানো,
গণতন্ত্র মানে ঠিক মনে রেখো, তুমি বড় বোকা, ঠিক ভাবে যদি জানো।
গণতন্ত্র মানে কদিন বাদে যে কবরে যাবে, সাজানো বিনা বিচারে যদি তার ফাসি হয়?
গণতন্ত্র মানে ফুলগুলো থাক তাজা, ফুল বাসি হওয়ার ভয়?

গণতন্ত্র মানে নয় হাট-ঘাট-মাঠ, নয় দখল কিছুর,
গণতন্ত্র মানে নয় ঠিক বিভেদের কোন সুর।
গণতন্ত্র মানে হাত-পা বেধে নয় দেখানো উন্নয়নের স্বপ্ন,
গণতন্ত্র মানে নয় কলা ঝোলানো, গাধার সামনে রত্ন।

গণতন্ত্র মানে নয় মৃতদের নিয়ে টানাটানি,
গণতন্ত্র মানে নয় দোষ চাপিয়ে মৃত মানুষের উপর, ফাইল ক্লোজের হাতছানি।
গণতন্ত্র মানে নয় ফাসানো হত্যা মামলায়,
গণতন্ত্র মানে মজুরের হাসি অবলিলায় দেওয়া কামলায়।

গণতন্ত্র মানে নয় মোটেও তোমার-আমার ঈর্ষা মাখানো চোখ,
গণতন্ত্র মানে হেটে চলা বুঝে, ভেবে সুক্ষ মাপঝোক!
গণতন্ত্র মানে এই আছো তুমি, নেই তুমি নিজ ভুলে,
গণতন্ত্র মানে তোমার প্রশংসা, তোমার কাজের মূলে।

গণতন্ত্র মানে যার তার গাড়িতে পতাকা তুলে দেওয়া নয়,
গণতন্ত্র মানে বুঝে শুনে দেওয়া হাতটি পতাকায়, জয় করে সব ভয়।
গণতন্ত্র মানে স্বাধীনতার বিজয়, গর্বে উঠা স্ফীত বুক,
গণতন্ত্র মানে সব মানুষের সমতা দেখতে পারার অনুভুতি সুখ-সুখ।

গণতন্ত্র মানে নয় অত্যাচার শারীরিক-মানসিক,
গণতন্ত্র মানে নয় তোমার জিঘাংসা, মানসিক ভাবে তুমি তবে সিক।
গণতন্ত্র মানে প্রতি ঘরে-ঘরে আগুন জ্বালানো নয়,
গণতন্ত্র মানে কেন তুমি আজ কাঁপো, কোন দোষে তুমি ভীত, কেন পেয়েছো তুমি ভয়।

গণতন্ত্র মানে নির্ভরশীলতা নয় বাহিনীর অতি বেশি,
গণতন্ত্র মানে নয় শুধু দেখানো মাসল পেশী।
গণতন্ত্র মানে বন্ধ করা নয় সবকিছু কারণে-অকারণে,
গণতন্ত্র মানে নয় পালাতে বাধ্য করা মানুষকে মাঠে-ঘাটে বনে।

গণতন্ত্র মানে নয় কেস আর কেসের বন্যা,
গণতন্ত্র মানে শিখতে পারা প্রকৃত গণতন্ত্রের সংজ্ঞা, ওগো ভাই, ওগো কন্যা।
গণতন্ত্র মানে ঐ দেখ দুর দেশ,
গণতন্ত্র মানে শত-শত বার পৃথিবীকে ধ্বংস করার ক্ষমতা নিয়েও যারা কেমন শান্ত-সুণীল বেশ।

গণতন্ত্র মানে ঐ দেখ দুর দেশ,
গণতন্ত্র মানে তারা যাদের হাতে নিরাপদ নিজ দেশের মানুষ, রেখেছে আজও অব্দি বেশ।
গণতন্ত্র মানে নয় আকাংখা আজীবন ক্ষমতা আকড়ে রাখার,
গণতন্ত্র মানে নিজে যেমন থাকা, তেমনি অপরকে দেওয়া সুযোগ থাকার।

গণতন্ত্র মানে নয় টক্কর সাথে ক্ষমতাহীনের,
গণতন্ত্র মানে হাত মেলে দেওয়া, পানে তাকিয়ে থাকা দীনহীনের।
গণতন্ত্র মানে ভেদাভেদ নয়, তোমার-সাথে আমার,
গণতন্ত্র মানে ভেদাভেদ নয় মুচির সাথে কামার।

গণতন্ত্র মানে বড় হওয়া নয়, শিক্ষিতের অহংকার,
গণতন্ত্র মানে স্বশিক্ষা, ভাংতে পারা কুসংস্কারের পাহাড়।
গণতন্ত্র মানে নয় নিজ দোষ অপরের ঘাড়ে চাপানো,
গণতন্ত্র মানে নয় নিজে ফাটিয়ে, অন্যকে ফাটানো।

গণতন্ত্র মানে আড়ি পাতা নয়, অন্যের প্রাইভেসীতে,
গণতন্ত্র মানে বাধা দেওয়া নয় অন্যের দিল খোলা হাসিতে।
গণতন্ত্র মানে নয় নিজেই খাবো, অন্যের থেকে কেড়ে,
গণতন্ত্র মানে নয় নিজের আখের গোছানো, অন্যকে মেরে-ধরে।

গণতন্ত্র মানে সাধু সেই, সাধু সেই জ্ঞানী,
গণতন্ত্র মানে আব্রাহামের বলা ‘সেই সরকার যে জনগণের দ্বারা, জনগণের জন্য, শুধুই জনগণের’ অমর বাণী।
গণতন্ত্র মানে মানুষ হত্যা নয় পাতানো কোন অজুহাতে,
গণতন্ত্র মানে নয় ফিরিয়ে আনা সেসব দিন, একইভাবে অন্ধকার দিনে-রাতে।

গণতন্ত্র মানে উচ্ছেদ আর ধ্বংস করে নির্লিপ্ত থাকা যদি হয়,
গণতন্ত্র মানে চিৎকার করে বলতে পারার অধিকার, ’চাই না এ গণতন্ত্র, বলা মুক্তকন্ঠে, না এ নয়, না ঐ নয়’!
গণতন্ত্র মানে নয় বিশেষ বাহিনীকে দিয়ে তুলে গুম করে ঘরে ফেরা,
গণতন্ত্র মানে নয় সাজিয়ে দেশকে জঙ্গী, শুকুনিদের আসার পথটি তৈরি করা।

গণতন্ত্র মানে, আবার বলি, সম্মান প্রদর্শন, হওয়া অপরের দু:খে দু:খি,
গণতন্ত্র মানে সুখ পাওয়া বেশ, হওয়া অপরের সুখে সুখি।
গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার ভাইয়ের দীপ্ত পদচারণা,
গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার বোনের বড় হওয়ার সাধনা।

গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার পাওয়া জন্মগত অধিকার,
গণতন্ত্র মানে পথ চলা পুরো, রক্ষা করা স্বাধিকার।
গণতন্ত্র মানে প্রয়োজনে লাল করে দেওয়া সবুজ,
গণতন্ত্র মানে প্রয়োজনে সাদা করে দেওয়া বুঝ বা অবুঝ।

গণতন্ত্র মানে নয় ছল করে বীষ খাওয়ানো,
গণতন্ত্র মানে নয় গাড়ির তলায় মেরে-মুড়ে প্রতিপক্ষকে দমানো।
গণতন্ত্র মানে সবার দিলখোলা মেশামিশি,
গণতন্ত্র মানে তুমি আমার দিদি, মেসো, মাসি, পিসি!

গণতন্ত্র মানে নয় দিনে রাতে ভোট কেন্দ্র দখল,
গণতন্ত্র মানে নয় খাল কেটে কুমির আনার ধকল।
গণতন্ত্র মানে নয় ধরা পরা গোয়েন্দাদের পাংশুটে মুখ,
গণতন্ত্র মানে নয় অবেলায় কাশি খুক, খুক।

গণতন্ত্র মানে প্রয়োজনে দেখানো কালো কোন শোকের পতাকা,
গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার স্রোতের বিপরীতে টিকে থাকা।
গণতন্ত্র মানে অকুতোভয়, সীমান্তে অতন্দ্র পাহারা,
গণতন্ত্র মানে শুধরে যাওয়া সময়কালে, সময় শোনায় শব্দ বালির মরুভুমি সাহারা।

গণতন্ত্র মানে ভোটে জেতা, ভোট চুরিতে-ডাকাতিতে কি হয়?
গণতন্ত্র মানে ’ভি’ দেখানো সাবলিল বিজয়।
গণতন্ত্র মানে নয় বাস্তবায়ন অন্য দেশের এজেন্ডা ।
গণতন্ত্র মানে বাস্তবায়ন নিজ দেশ-জাতির মঙ্গলের ঝান্ডা।

গণতন্ত্র মানে কি আবারও বাংলার আকাশে জয়াদের আনাগোনা?
গণতন্ত্র মানে নয় কি তোমার-আমার বেশ জানা-শোনা।
গণতন্ত্র মানে আমার আয়নায় আঁকা তোমার সেই প্রিয় মুখ,
গণতন্ত্র মানে তোমার-আমার মুখ খানি সুখ-সুখ।

গণতন্ত্র মানে ভয় পাওয়া ভেঙে যাওয়া জনতার সহ্যের সব বাঁধ,
গণতন্ত্র মানে মুক্ত আকাশে চলতে পারার সব, সব খানি সাধ।
গণতন্ত্র মানে হাতটি ধরে চলতে পারা, তোমার সাথে কভু ধীরে-কভু ত্বরা,
গণতন্ত্র মানে আমার সব পাগলামি, তোমার সহ্য করতে পারা।

গণতন্ত্র মানে কি বাংলাদেশকে নিয়ে নারকীয় ষড়যন্ত্র?
গণতন্ত্র মানে কি কানে-কানে মানুষ মারার মন্ত্র?
গণতন্ত্র মানে এগিয়ে নেওয়া অসমাপ্ত সব কাজ,
গণতন্ত্র মানে সঠিক মাথায় পড়িয়ে দেওয়া অমূল্য রতন তাজ।

গণতন্ত্র মানে বলতে পারা, বলতে দেওয়া, ঠোট কাটা উচিত কথা,
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা, অন্য হৃদয়ের ক্ষনিক ব্যথা।
গণতন্ত্র মানে তুলনা করা, নিজের দূর-সদূরের অতীত,
গণতন্ত্র মানে ভয় পাওয়া পড়ে যাওয়ার, নিজের পায়ের তলার ভীত।

গণতন্ত্র মানে নয় চুরি করা, করতে দেওয়া সীমাহীন,
গণতন্ত্র মানে ডাকাতি করে কেড়ে নেওয়া নয় সম্পদ তার, যারা দীনহীন।
গণতন্ত্র মানে ম্যাগনিফাইং গ্লাসে দেখা, হঠাৎ করে পেট ফুলে কলাগাছ কে?
গণতন্ত্র মানে কাছে টেনে নেওয়া আমি-তুমি আর আমাদের মতো যে।

গণতন্ত্র মানে জ্বলজ্বল করা রাতের আকাশের তারা,
গণতন্ত্র মানে মনে রাখা, গণতন্ত্রের জন্য প্রাণ দিয়েছিলো দেশে-দেশে অকাতরে যারা।
গণতন্ত্র মানে নয় হঠাৎ পাওয়ায় বেহুস হওয়া,
গণতন্ত্র মানে মোটা চামড়া, সব কিছু, সব কিছুই সওয়া।

গণতন্ত্র মানে নয় আঁটা নিত্য-নতুন ফন্দি-ফিকির,
গণতন্ত্র মানে নয় ছদ্ববেশে নানা নামে নানা জিকির।
গণতন্ত্র মানে উত্তর দেওয়া মৃত আত্মার ছোড়া প্রশ্ন,
গণতন্ত্র মানে সাহস চাওয়ার, দেখার গণতান্ত্রিক দেশের স্বপ্ন।

গণতন্ত্র মানে নয় মেরে-কেটে ক্ষমতায় থাকার খায়েশ,
গণতন্ত্র মানে নয় করা সব ধ্বংস, যা ইচ্ছা তা করা জায়েজ!
গণতন্ত্র মানে নয় মোটেও দেওয়া হিসেব শুভংকরের ফাঁকি,
গণতন্ত্র মানে নয় যাকে যেভাবে ইচ্ছা দেওয়া লাথি-কিল-ঘুষি ঝাঁকি।

গণতন্ত্র মানে ভাবছো সবাই, হাসছে না বুঝে, তোমার ছল, তোমার ভনিতা,
গণতন্ত্র মানে হাসছে সবাই, তোমাদের বারবার আবরনহীন হতে দেখে, মানো? মানো তা?
গণতন্ত্র মানে ঠিক মনে রাখা নিক্তির বিচারে,
গণতন্ত্র মানে নয় তুমি এ পাড়ে তো, আমিও ওপারে!

গণতন্ত্র মানে নয় মোড়ে-মোড়ে বাহিনী লাঠিয়াল,
গণতন্ত্র মানে নয় বার-বার জনগণকে তোমার দেওয়া বাক অধীনতা, বুনো শাল।
গণতন্ত্র মানে যদি হয়, তোমার সাথে আমার আড়ি,
গণতন্ত্র মানে সেই অধিকার বলতে পারার, ’সরে যাও তুমি, এমন গণতন্ত্র থেকে, তুমি তাড়াতাড়ি’।

গণতন্ত্র মানে নয় ডিজিটাল চুরি বা ডিজিটাল ডাকাতি,
গণতন্ত্র মানে নয় অন্যকে মারার ফাঁদ পাতা-পাতি।
গণতন্ত্র মানে মোহামেডান-আবাহনীর মাঝে খেলা যেমন ফেয়ার প্লে,
গণতন্ত্র মানে তার মাঝে দাড়ানো নিরপেক্ষ-কঠোর রেফারীর দ্বারা তেমনি খেলা চালানো গেলে।

গণতন্ত্র মানে নয় আটা দুরভীসন্ধী যন্ত্রের জালে, ক্ষমতার চিরস্থায়ী ব্যবস্থা করা,
গণতন্ত্র মানে হৃদয় বোঝা, পড়তে পারা জনগণের নাড়ির সাড়া।
গণতন্ত্র মানে নয় ভাবনা, তুমি শুধূ মুক্তিযোদ্ধা, আর আমি রাজাকার,
গণতন্ত্র মানে নয় ভাবনা তুমি রাজাকার হলে আমি মুক্তির স্বাধিকার।

গণতন্ত্র মানে নয় কাটা সেই ডাল, নিজে বসা যেই ডালে,
গণতন্ত্র মানে নয় বেছে-বেছে টার্গেট কিলিং, সাজানো কোন জালে।
গণতন্ত্র মানে নয় চিন্তা, সেই সর্বনাশা আদ্যি কালের,
গণতন্ত্র মানে নয় করা ভুল বার বার, নয় টানা বার-বার তার জের।

গণতন্ত্র মানে যেমন পরমত সহিঞ্চুতা,
গণতন্ত্র মানে তেমনি নিজ অধিকারের পক্ষে বলা কথা।
গণতন্ত্র মানে সংখ্যালঘুর পূর্ণ স্বাধীনতা,
গণতন্ত্র মানে উপজাতিদের পাওয়া সম-অধিকার, শালিনতা।

গণতন্ত্র মানে নয় দেওয়া ছাত্র-ছাত্রীর হাতে লাঠি-অস্ত্র হায়-হায়,
গণতন্ত্র মানে নয় প্রচারণা মিথ্যার গোয়েবলসীয় কায়দায়।
গণতন্ত্র মানে নয় সংখ্যায় লঘুর প্রাণ ভয়,
গণতন্ত্র মানে নয় আমি শেষ হয়ে, তোমাকে করি ক্ষয়।

গণতন্ত্র মানে রাষ্ট্রের আয়ে গরীবের অধিকার,
গণতন্ত্র মানে নারীদেরও প্রাপ্য সম-অধিকার।
গণতন্ত্র মানে নয় গরীবের আরও গরীবি হওয়া,
গণতন্ত্র মানে নয় ধণীর সম্পদ আকাশ ছোয়া।

গণতন্ত্র মানে নুর হোসেন আর কত-কত শহীদের রাস্তায় অবলিলায় প্রাণ দান,
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা জনগণের আকুতি, জনগণের চাওয়া, হারিয়ে ফেলা সম্মান।
গণতন্ত্র মানে নয় বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে বারবার অবনয়ন,
গণতন্ত্র মানে নয় হুমকি ক্ষণে-ক্ষণ।

গণতন্ত্র মানে নয় কাউকে চোর বানানোর চেষ্টা,
গণতন্ত্র মানে নয় কাউকে জঙ্গী বানানোর অপচেষ্টা।
গণতন্ত্র মানে যদি হয় তুমি কামড় দিয়েছো বলে, আমিও যদি কামড় দেই,
গণতন্ত্র মানে তাহলে বোঝো, তুমি হারিয়ে ফেলেছো, কোথায় তোমায় খেই।

গণতন্ত্র মানে নয় তোমার হাতে দেশ নিরাপদ ভেবে আত্মতৃপ্তি,
গণতন্ত্র মানে নয় আমৃত্যু ক্ষমতা ধরে থাকার নেশায় চোখে মরিচিকার দীপ্তি ।
গণতন্ত্র মানে একদলীয় শ্বাসন, নিয়ন্ত্রিত মিডিয়া যদি হয়,
গণতন্ত্র মানে বোঝো তাহলে তলে-তলে কতটুকু হয়েছে ক্ষয়।

গণতন্ত্র মানে অন্ধ আক্রোশে যদি ঝাপিয়ে পড়া হয়,
গণতন্ত্র মানে বোঝো তোমার পতন আসন্ন নিশ্চয়ই।
গণতন্ত্র মানে দেশকে পিছিয়ে নেওয়ার স্বপ্ন নয়,
গণতন্ত্র মানে একাত্ব হয়ে সারা বিশ্বের আধুনিক ধারনার সাথে, বেছে নেওয়া সেরাটা অবশ্যই।

গণতন্ত্র মানে দুর থেকে নিয়ন্ত্রণ করা, মানসিক নির্যাতন যদি হয়,
গণতন্ত্র মানে বুঝে নিও তবে ঠিক পথ হারিয়েছো তুমি, কতটুকু পেয়ে অসীম ভয়।
গণতন্ত্র মানে যদি হয় বারবার অপরাধ করিয়ে তুমি, তোমার সাধু সাজা হয়,
গণতন্ত্র মানে ভেবো নিশ্চয়ই, এটা তোমার জয় নয়, তোমার পরাজয়।

গণতন্ত্র মানে যদি হয় উন্নয়নের গরু কাজীর কিতাবে আছে, খামারেতে নেয়,
গণতন্ত্র মানে ভাবো কতটুকু হয়েছে অধ:পতন, তার হিসেব সঠিক তোমায় কে দেয়!
গণতন্ত্র মানে অতি নির্ভরশীলতা নয় বাহিনী বা এজেন্সীর প্রতি,
গণতন্ত্র মানে নির্ভরতা নিজ দল, আর নিজ দেশের জনগণের প্রতি।

গণতন্ত্র মানে চিনতে পারা কে মোসাহেব, কে কাজের কাজী,
গণতন্ত্র মানে চিনতে পারা কে সেজেছে নামাজী আর ভন্ড পাজি বলে হ্যা, জি! হ্যা জি!!
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা পাশে সঠিক মেধা, নিবেদিত অন্ত:প্রাণ,
গণতন্ত্র মানে বুকে রাখা বল, রবি ঠাকুরের কথায়-’ক্ষয় নাই তার, ক্ষয় নাই, নি:শ্বেষে প্রাণ যে করিবে দান’।

গণতন্ত্র মানে আজকে ওদের কাজে লাগাও যদি, অন্যের সুনাম ধ্বংসে,
গণতন্ত্র মানে নিশ্চয়ই ভেবো হারিয়ে ফেলেছো সেই রক্ত তোমার, যেথায় জন্ম তোমার, যে বীরোচিত বংশে।
গণতন্ত্র মানে চারিদিকে কত শাপ আর শার্দুল বুঝতে পারছো কি,
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারছে সবাই, দুর থেকেও, কার জয় হবে, কার হাতে উঠবে জয়া ভি!

গণতন্ত্র মানে সইতে পারা তিক্ত সত্যি কথা,
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা দু:খে নীল নিরব শ্রোতা।
গণতন্ত্র মানে বুঝতে পারা আগেই, সব হারিয়ে নয়,
গণতন্ত্র মানে ভুল পথ থেকে ফিরে এলে, তুমি হবে দিগবিজয়ী নিশ্চয়ই।

গণতন্ত্র মানে ধোকা দিয়ে জনগণকে, যদি হয় অট্টহাসি,
গণতন্ত্র মানে বোঝো নিশ্চয়ই, তুমি যাকে নিয়ে হাসছো, সে হাসছে অবলীলায় তোমার বোকামীতে দেওয়া গেরো ফাঁসি।
গণতন্ত্র মানে শুধরাতে পারা পুরো গণতন্ত্রীতে, শিঘ্রই আঁখি খোলা,
গণতন্ত্র মানে জেনো ভালো কাজে শুভেচ্ছা জনগণের, শুভ কামনাও যায় বলা।

গণতন্ত্র মানে নয় লুকোচুরি, নয় চুক্তি গোপন,
গণতন্ত্র মানে নয় ভুল অংকে, ফাঁদ পাতা স্বপন।
গণতন্ত্র মানে অবারিত বিল, শালিক ডাকা প্রান্তর,
গণতন্ত্র মানে নয় যন্তর, নয় ওদের ফাঁদে পড়ার কোন মন্তর।

গণতন্ত্র মানে শুধু জয়, শুধু ভোটে জেতা যেমন নয়,
গণতন্ত্র মানে বোঝা হেরে-হেরেও, কিন্তু বড় বিজয়ী হওয়া যায়, হয়।
গণতন্ত্র মানে চলতে দেওয়া অবারিত নদীর জল,
গণতন্ত্র মানে রক্ষা করতে পারা তিন ভাগ জল ঘিরে থাকা এক ভাগ নিজ স্থল!

গণতন্ত্র মানে একটি ফুলের বাগান,
গণতন্ত্র মানে সবুজ মাঠে ফসলের জয়গান,
গণতন্ত্র মানে ফুটতে দেওয়া শত ফুল একসাথে,
গণতন্ত্র মানে মেলানো বুক, মেলানো হাত-হাতে।

This slideshow requires JavaScript.

Related Link:
1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view


Facebook page
From the Heart of Bangladesh

The meaning of 21 (একুশ মানে) !

21 Means
What is the meaning of 21? Some lines are in hand through writing. Selected lines have been published.

২১ মানে আসলে কি? লিখতে-লিখতে বেশ কটা লাইন হয়ে গেলো। নির্বাচিত অংশ প্রকাশ করা হলো।

একুশ মানে
মীর মাহাফুজ আলম

২১ মানে তোমার আগে আমি,
২১ মানে তোমার চেয়ে দামী।
২১ মানে স্বপ্ন পূরণ হওয়া,
২১ মানে তোমার আমার চাওয়া।

২১ মানে আকাশ ভরা আলো,
২১ মানে সব গুলোই তার ভালো।
২১ মানে বুকে কাটা দেওয়া,
২১ মানে ধৈর্য্য ধরে সওয়া।

২১ মানে ষড়যন্ত্রের পরাজয়,
২১ মানে ধৈর্যের জয় হয়।
২১ মানে কান্নার পরে হাসি,
২১ মানে ভয় না পাওয়া ফাঁসি।

২১ মানে পরাজিত ডরপুক,
২১ মানে বুকের ভেতর অনেক খানি সুখ।
২১ মানে স্রোতের বিরুদ্ধে চলা,
২১ মানে না বলা কথা বলা।

২১ মানে একলা পথে চলা,
২১ মানে ঝুড়ি পূর্ণ তলা।
২১ মানে ঝড়ের ভেতর আমি,
২১ মানে নতুন সূর্যের হাত ছানি খুব দামী।

২১ মানে না পড়া কবিতা,
২১ মানে ছবির বিলবোর্ড-কবিতা।
২১ মানে ভাষার জিতে যাওয়া,
২১ মানে না চাইতেই ফিরে পাওয়া।

২১ মানে মাঠের পরে দুর,
২১ মানে গান গাওয়া প্রিয় সুর।
২১ মানে ধর্ম-বর্ণ ঠিক পাশাপাশি,
২১ মানে কারও বিষের বাশি।

২১ মানে মানবতার গান গাওয়া,
২১ মানে নিজের দাবী সবটুকু পূরণ হওয়া।
২১ মানে বটতলার প্রিয় উদাস বাউল নিখাদ,
২১ মানে দেওয়ালে-দেওয়ালে অক্ষরে প্রতিবাদ।

২১ মানে ঐ ডাক ঘুর-ঘুর,
২১ মানে প্রমাণ ভুর-ভুর।
২১ মানে জেলে যেমন যাওয়া,
২১ মানে জেল থেকে ফিরে পাওয়া।

২১ মানে প্রাপ্তি সীমাহীন,
২১ মানে রাত নয়, দিন-প্রতিদিন।
২১ মানে হৈ-হৈ সব ডাক।
২১ মানে প্রতিক্ষাতেই থাক।

২১ মানে দিন বদলের স্বপ্ন,
২১ মানে ঠিক করে নেওয়া যত্ন।
২১ মানে সম্ভাবনা সীমাহীন,
২১ মানে বদলে যাওয়া দিন।
২১ মানে ঠিকই বদলে যাওয়া দিন।

This slideshow requires JavaScript.

Related Link:
1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!

The flatterer or groveller
These are also fictitious characters (flatterer or groveller). This would be merely co-incidence if this matches with anyone. These characters were as available in the past,  as at present even more. These are seen everywhere of our real life, on the screen of television, on the picture of newspaper daily. This is not hard to identify them. This is also not hard to recognize them. They can grasp us at once. This is very big necessity to recognize them at right time-at least before doing damage.

এটিও একটি কাল্পনিক চরিত্র। কার সাথে মিলে গেলে তা নিতান্তই কাকতালীয়। এই চরিত্র গুলো আগে যেমন ছিলো, তেমনি বর্তমানে আছে আরও বেশি। বাস্তবিক জীবনে সর্বত্র দেখা যায়, টিভির পর্দায়, পত্রিকার ছবিতে রোজই দেখতে পাওয়া যায়। ধরতে পারা কঠিন নয়। চিনতে পারাও কঠিন নয়। এরা আপনাকে আমাকে গ্রাস করতে পারে নিমিশেই। সময় মতো চিনতে পারা বড়ই প্রয়োজন। অন্তত ক্ষতি করতে পারার আগেই।

মো-সাহেব
মীর মাহাফুজ আলম

বলো তো, রবি দাস, ভোটে আমি জিতছি?
জিততে চাই আমি, হার নয়, ওহ! ছি!!
-হ্যা, বাবু, বিলক্ষণ, জিতবেন সত্যি,
-সাথে পাবেন মান, ডাক, আরও বেশি ভক্তি!

দেখেছো কি, ও পাড়ার, ব্যানার্জী শংকার,
কত তার, কত চ্যালা, হাতি-ঘোড়া হুংকার!
-হুংকার সার তার, জিতবেন আপনি,
-ও ব্যাটা, যত দেখুক, গাড়ি-ঘোড়া স্বপ্নি!

আচ্ছা, এই বার, বলো, ক্ষেত-পালার কি খবর?
-সব কিছুই বেশ ভালো আছে, ভালো আছে জব্বর!

শুনলাম, ক্ষেত নাকি, পোকাতেই নষ্ট,
-না, বাবুু, এতে আর, এতে কি এমন ভ্রষ্ট!
-ফুলে-ফুলে ছেয়ে গেছে আপনার ক্ষেত,
-পাহাড়ায় আছে মালি, হাতে নিয়ে বেত!

আচ্ছা, ও পাড়ার, রুপন্তীকে দেখেছো?
কত তার রুপ, আর সুর তোলে কন্ঠে,
ঠাঁট দেখে মনে হয়, নন্টে হীন ফন্টে!
-হ্যা, দাদা, বৌদি তো ওর কাছে কিছু নয়,
-এ রকম বৌ পেলে জীবনে সব সয়!

ও পাড়ার পুব কোণে, জংলা যে জমিটা,
রোজ ভাবি ওটা নেবো, সাথে বিল খনিটা।
-হ্যা, বাবু, ওটা হলো, এ পাড়ার সেরা,
-লাগে দিই হুংকার, জোর করে বেড়া;
-না, দিয়ে যাবে কই, ওই, শালা, ভৌমিক;
-আমাদের কি নেই, লাঠিয়াল সৈনিক!

আচ্ছা, রবিদাস, ভাবছি,
দূর দেশে গিয়ে আমি স্যাম্পেন খাচ্ছি!
-খাবেন তো আলবৎ স্যাম্পেন সুধা,
-লাগলে সাথে নেবেন জগু বাবু আর মৃধা!

আচ্ছা, রবি দাস, ভাবছি,
এত-এত খাঁব কেনো, বসে আমি দেখছি!

-এই বার, রবি দাসের, মুখে কোন কথা নেই,
-পিটি-পিটি চোখে তার, ভয় আছে, ভাষা নেই!
-বাবু, বুঝি, বুঝে গেলেন, সবগুলিই ভুল,
-ভুলে-দুলে, গুনতে হবে-এই সবের মাসুল!

 

This slideshow requires JavaScript.

Related Link:
1. The meaning of love (ভালোবাসা মানে)!
Link: Click to view
2. The meaning of independence (স্বাধীনতা মানে)!
Link:  Click to view
3. The meaning of democracy (গণতন্ত্র মানে)!
Link: Click to view
4. The meaning of 21 (একুশ মানে) !
Link: Click to view
5. The flatterer or groveller (মো-সাহেব)!
Link:  Click to view

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

The Grandfather!

দাদু
মীর মাহাফুজ আলম

ষাট পেরিয়ে এখন আমি আশি,
দুষ্টু মেয়ের কথায় আমি বাসি।
ঝাকরা মাথা চুল হারিয়ে বুনো,
তোমার মতই মেয়ের দাদা শুনো।

বয়স হলো কচু পাতার জল,
এই শূন্য, এই পাবেনা তল।
দুষ্টু মেয়ে বক্র কেন হাসো,
দাদার মতই না হয় ভালোবাসো।

তোমার দিদা হয়নি যখন ছবি,
ভাবে যখন উঠতি আমি রবি।
ভেঙচি দিত তোমার মতই এমন,
রকমারী আর কত কি কেমন!

আজ বহদিন হারিয়েছে সে কোথা,
বুকের ভেতর অনেক খানি ব্যাথা।
হাসো দাদু, হাসো অবহেলে,
দু;খ, জ্বরা সব কিছু ভুলে!

The Gradfather or Dadu

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

Wishing Bengali New Year greetings to all the people of all languages of all the nations of all the countries.

বোশেখ
মীর মাহাফুজ আলম

সৃষ্টি ছাড়া সর্বনাশা
ঐ খেয়ালী ধেয়ে যায়,
মেঘ গুর-গুর হাওয়া চুর-চুর
বোশেখ এলো, এলো ভাই।

দিন ফুরোলো, রাত ফুরোলো
আর ফুরোলো মাস,
নতুন বছর এসেই গেলো
সাজো নতুন সাজ।

সকল দেশের এবং সকল জাতীর সব ভাষা-ভাষী মানুষকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ ১৪২৫।

Wishing Bengali New Year greetings to all the people of all languages of all the nations of all the countries.
Suvo Nobo Borso-Bosekh

Professor M. Zahid Hasan, the discoverer of mass less particle, Weyl fermion

This is the story of another proud Bangladeshi Bengali. This is about M. Zahid Hasan (Bengali: জাহিদ হাসান) who led A group of researchers of Princeton University in the United States which discovered the elusive massless quasi particle, Weyl fermion, predicted 85 years earlier. This is the unique innovation. This innovation will bring revolution in producing electronics goods for the next generation. This particle has incredible capacity to move inside the matter and anti-matter through crystal. This is noteworthy that Physicist and mathematician Hermann Weyl predicted the existence of Weyl fermions in 1929.

Zahid Hasan alias Taposh is the eldest of two sons and one daughter of Advocate Mohammad Rahman Ali and wife Nadira Ali Talukdar. Zahid has passed Secondary (SSC) from Dhanmondi Government Boys’ High School in 1986 and higher secondary(HSC) from Dhaka College in 1988. He stood second in the combined merit list in SSC and first in HSC.

He later studied at the University of Texas in Austin, United States of America. He has worked with physicist Professor Steven Weinberg, who had shared the Nobel Prize with Professor Mohammad Abdus Salam in 1979. He started working on experimental based physics with his interest. He had completed his masters and doctorate at Stanford University. After completing his studies at Princeton University, he joined as a ‘lecturer’ there in 2002. He became a ‘full professor’ in 2011. He is currently a professor of physics at the university.

He has another identity as a writer. Zahid published his first book on science, Aesho Dhumketur Rajjae (Bengali: এসো ধুমকেতুর রাজ্যে) which can read as ‘come to the World of Comets: An Astrophysics Primer’ at the age of just 16 in 1986.

In his personal life, he got married with Sarah, MIT-educated engineer, who works for Microsoft. They have two adorable children: Arik Ibrahim Hasan (13) and Sarina Maryam Hasan (11).

Contact:
Position: Professor
Title: Professor of Physics,
Princeton University,
Office: 321 Jadwin Hall,
Phone: 609-258-3044
Email: mzhasan@princeton.edu
Homepage: http://physics.princeton.edu/zahidhasangroup/

Youtube:

This slideshow requires JavaScript.

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

Victory is not seen, heard the story of the victory…By Mir Mahfuj Alam


Victory is not seen, heard the story of the victory…

This article can be started with the word of ‘i’. I have not seen the victory, but heard the story of victory. A thought came into the mind that i am not the only one. Many of us like me, residing in this part of bangle or in the other part of bangle, had not seen the victory. They have heard the saying of the victory, seen the history of the victory, realized the victory as the victorious. The victory is the victory. Why does so much of rampage  with this victory? The Alexander had conquered the world, so did Toimur, or the mighty powers empowered with the blessing of the technologies of the world are doing so at present. They don’t have the rampage. Why does we?

Our victory is not the victory of the people of a small region alone-Nor the first victory of the world. The winner of the decades came with the vehicle of victory. That victory or the present victory is sharpening with the arms. Literally our victory may not be an exception too. What is not there in this victory like the war for 9 months, arms fight, sacrifice of millions of people, probably more sacrifice of the dignity of women in number? All the ingredient of the victory remains in this victory. What is the difference in this victory then?

The war pron nation fights the battle for the shake of keeping commercial interest at present. The small soul of the nation fights to preserve its existence. This was done so as to overrun the world, to keep the world under own foot. Or the crusade was fought with the difference from religion to religion. But was there anyone who fought his fight to preserve the dignity of own mum like language? Those who fought to establish the first state in world map for the people of a certain language? The answer is known to all. No, there is no nation in the world history who fought his battle for the shake of his own language! Those who fought against the people of same faith of religion to establish the right of talking in own mother tongue. We are that brave nation who fought for the language. Since we know to preserve the dignity of own language, we know to preserve the dignity of other language as well. So people of other languages can speak in their own language, can write in their own language, and even can read in their own language. Even they can peep straight into the technology in technological evaluation. No matter, whether s/he is speaking sawtal (Santal) or other language. The hand of this nation is extended to them with utmost affection.

They have started realizing the justification of the war at present against whom we fought, so does the UNESCO, organization of the souls of the nations. So, the acknowledgement was delivered. The 21st February of our nation became for all-for the world humanity. It is enlightened as the symbol of freedom for all the people of different language speaking people.

The technology that tightened the people with strong roof, Our Bangla did not stumble even in that. Some brave of this part of bangle and that part of other bangle keeps the sound walking of bangla. Let it be the windows of Microsoft, or the Latest Mobile of the present, Where is not bangla? Even the Bangla language fixes his spot in the website, URL or in Unicode. This is heard that this language is gone into the space too. My mum like Bangla is not tired of walking for thousand years, forward yet to the space. The day may not be so distant when the signal of the space will be broadcasted in bangla; Even will be received in bangla. Probably any signal send in bangla may reach to the intelligent alien of other planet. Any Bangladeshi or Bengali young chap may reach to the space. S/he will step on the chest of the moon and sing, Oh! My soil of own country, put my head on you. (Oh Amar Desh’r mati, Tomar porE thekai Matha- Rabindranath Tagore)

The walking started by Rabindranath, or Najrul, or Our Jibananda Dus, or the bangla enrich by Lalon to various unknown poets; that bangla never stopped its walk. Probably it stands stopped, or any incident of the history departed itself. But it is stopped anymore. It runs its usual speed. This journey may flow in two tides. Let it be for few more days. This will turned into unique way after reaching in the estuary of the Sea.

A thing can not leave to make anyone excited. That is our national anthem. The country is divided into various parts. Even though the formula of the unification is still remain intact. Oh my bangle of gold, i love you, written by Rabindranath Tagore (Amar Sonar Bangla, Ami tomai valobashi) is sung by the people of this part of bangle everyday as national anthem, the people of the other bangle still sings, The people and the mind..(Jono Gono Mon O). This is a matter of thought that Hundred crore people along with the crores of other part of bangle sing this song. Moreover, this is heard in the recent days that the national anthem of Sree Lanka is also written by Rabindranath Tagore. The song was reached to Sri lanka, land of Raban (Character of Hindu religion myth) with the hand of his any followers.

Or The Ever valiant head (Chiro unnoto momo shir) Kazi Najrul Islam still remain the symbol as the voice of all the deprived and fighting spirit. The protesting people of both the bangle raise their voice with the saying – Break down the iron made door of the jail (Karar oi Louho Kopat, Venge felo-Kazi Najrul Islam). Fresh and New research has been started in the world arena too about him. Probably his saying is true that though he born in this country (sub-continent), he is for the entire nation, for the entire world.

The main secrete behind the stability of a country is its economical power. Everything seems to be useless if there is no economical freedom. The country becomes freedom with the war struggle of 7 crore bangalis. The number of the population reaches to 15 crore and still there is no famine here. The brave farmers of this small country have been making the arrangement of providing food to the mouth of all with their hard labor. In greater expect this is said that there is no famine even with the presence of huge population of the country. An international organization like Goldman Sackman also predicted the economic development of this country is comparable with the rapid forwarded economy like India and Brazil. This bangalis do not know to stop, even with the stumble. The food less  7 core bangalis turned into 15 crores and still no feminine got the dream of making nuclear power plant, or sending space shuttle to the space. Or once dreamed Laptop has been manufactured in this country itself. The bangalis did not stop by making Motor cycle, Fridge, Air Conditioner etc, but they move forward to making vehicle side by side ship building. The bottomless nation did not stop by repairing its bottom-Moves far forward. A country of cyclone and flood, Bangladesh is leading the world in Micro-Credit or Small Loan. Dr. Yunus of this part of Bangle side by side Omarta Sen of the other part of bangle gives the world the signal that we too can! Or few more personalities or organizations from here are also knocking the door of Noble from this Bangladesh too. The example of We also Can is our Garments Industry. The garment girls become the master of new dream by weaving thread after threads in the mean time. If we speak about development, we ought to say regarding pharmaceuticals and ceramic industry. And the word that is noteworthy is the victory of our sports person. The country whose national sport is Kabadi, they achieved the capability of playing the war of Cricket. And think that the women of the second largest Muslim country of the world beat America to get one Day status in recent past. If the male Musa Ibrahim can touch the mile stone by waving the flag of bangles in the highest peak of Everest, the female Wasfia did not move less at all. She is moving with the challenge of winning the highest 7 peaks of 7 continents.

This writing was started with the Victory. To write-up the victory memorials of the victory that i have not seen. The new generation whose birth is after the liberation of freedom is puzzled. Every one is claiming the achievement of the freedom as own by the shrewd tricks of politics. The so-called demanders of the right history are also divided into various parties and opinions. Sometimes certain persons or certain parties want to hijack the freedom that we got with the sacrifice of millions of people and with the sacrifice of thousands of women’s dignity. As the declaration of Freedom is the utmost truth of the history, the truth is the tactical organizational capability of taking the demand of the deprived people of one region to War as well. This is a matter of sorrow that we are move less with the conception that ALL CREDIT IS OURS. There is no prediction of moving backward or movement. We, who did not see the liberation war are still optimistic, but holding the spirit of the liberation war in vessel-Every Single day.

Related Link:
https://mahfujalam.wordpress.com/literature/lekhalekhi-archieve-bangla/

Bijoy dekhini Bijoy ar kotha sunechi by Mir Mahfuj Alam_24 November 2011_Final

Bijoy dekhini Bijoy ar kotha sunechi by Mir Mahfuj Alam_24 November 2011_Final

Facebook pageFrom the Heart of Bangladesh

%d bloggers like this: